1. admin@protidinbd24.com : admin :
শনিবার, ০২ জুলাই ২০২২, ০৫:২৯ অপরাহ্ন
আমাদের ভিষন;
*সত্য প্রকাশে আমরা দূর্বার*
প্রধান খবর
শিক্ষকরা নিজ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের কোচিং বা প্রাইভেট পড়াতে পারবেন না; যেসব রুট ধরে পদ্মা সেতু হয়ে ইউরোপে যাবে ট্রেন পদ্মা সেতু: ৩৫ বছরে সরকারের দেওয়া অর্থ পরিশোধ করবে সেতু কর্তৃপক্ষ; পদ্মা সেতুর রেলিংয়ের নাট-বল্টু খুলে টিকটক ভিডিও তৈরি করা যুবক আটক সর্বনিম্ম ২ ঘন্টা থেকে ২০ ঘণ্টার দুর্ভোগ ৬ মিনিটে শেষ পদ্মা সেতুতে কোনো যানবহন দাড় করিয়ে ছবি তোলা যাবেনা; কুমিল্লা সিটি মেয়র নির্বাচনে হার-জিতের ইতিবৃত্ত; স্বপ্নের পদ্মা সেতু: সূচনা থেকে সর্বশেষ ইতিবৃত্ত তিনিই কি দূর্নীতির বরপুত্র? নাকি হাতির দন্ত! পদ্মা সেতুর টোল সংযোজন করে ভাড়া বাড়লো ১০টাকা; দক্ষিণ বঙ্গের ১৩টি রুটের বাসভাড়া নির্ধারণ; রাসুল (সঃ) কে নিয়ে কটূক্তি করায় বিজেপি নেতা গ্রেপ্তার ২৫তারিখেই উদ্বোধন হবে স্বপ্নের পদ্মা সেতু; পদ্মা সেতু নির্মাণ ব্যয় নিয়ে স্বার্থান্বেষী গোষ্ঠীর মিথ্যা প্রচারণাগুলোকে নিন্দা জানাই॥ Abc চট্টগ্রাম হাটহাজরীতে সাতবাচ্চার জম্ম দিয়েছেন এক মা; বার কাউন্সিল নির্বাচন: আ.লীগের সাদা প্যানেল ১০ ও বিএনপির নীল প্যানেল ৪ পদে জয়; দূর্নীতি মামলায় নর্থ সাউথের ৪ ট্রাস্টি সদস্য কারগারে; ভূমি সংস্কারে নতুন আইন, ব্যক্তি পর্যায়ে ৬০ বিঘা মালিকানার সুযোগ, বেশী হলে বাজেয়াপ্ত। পিকে (প্রশান্ত কুমার) হালদার ইস্যুতে চার সংস্থায় তথ্য চেয়ে চিঠি দিয়েছে দুদক। পদ্মা সেতুর উদ্বোধনে চলছে বিশেষ প্রস্তুতি;

সর্বনাশ হবে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুললে ; অধ্যক্ষ হামিদা আলী।

  • মঙ্গলবার, ১২ মে, ২০২০
  • ৩৮৭ বার পড়া হয়েছে

সাউথ পয়েন্ট স্কুল অ্যান্ড কলেজের প্রতিষ্ঠাতা অধ্যক্ষ শিক্ষাবিদ হামিদা আলী বলেছেন, বর্তমান পরিস্থিতিতে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার কোনো সুযোগ নেই, খুললে সর্বনাশ হয়ে যাবে। করোনাভাইরাস সংক্রমণ সম্পূর্ণরূপে বন্ধ না হওয়া পর্যন্ত কোনোভাবেই স্কুল-কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয় খোলা যাবে না।

গতকাল বাংলাদেশ প্রতিদিনের সঙ্গে আলাপকালে এসব কথা বলেন তিনি। ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের সাবেক এ অধ্যক্ষ আরও বলেন, আমরা কোনোভাবেই চাই না মহামারী আমাদের সন্তানদের ছুঁয়ে যাক। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার আয়োজন করলে আমরা শিক্ষক, অভিভাবকরা এর প্রতিবাদ করব।

আমরা চাই না ছাত্র-ছাত্রীরা ঘরের বাইরে গিয়ে আক্রান্ত হোক। বর্তমানে স্কুল-কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়গুলো যেভাবে অনলাইনে ক্লাস নিচ্ছে সেটি অব্যাহত থাকুক। কারণ কারও প্ররোচনায় পড়ে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুললে ছাত্র-ছাত্রীরা স্বাস্থ্যবিধিও মানবে না, সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করা যাবে না তাদের মধ্যে। সরকার বারবার তাগাদা দিলেও প্রাপ্তবয়স্ক সাধারণ মানুষই তো স্বাস্থ্যবিধি মানছে না। তাহলে ছাত্র-ছাত্রীদের মধ্যে কীভাবে এটা নিশ্চিত করা সম্ভব হবে? তাই কোনোভাবেই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়া যাবে না। শুধু শুধু রোগী বাড়িয়ে লাভ নেই।

মহামারীর এ পরিস্থিতিতে ডেকে এনে কোনো সংকট সৃষ্টি করা যাবে না।
তিনি বলেন, মহামারীর এ বিপদ এক দিন কাটবেই। তখন সিলেবাস সংকুচিত করে হোক, আর অতিরিক্ত ক্লাস নিয়ে হোক যে কোনোভাবে একাডেমিক পাঠ শেষ করা যাবে। জীবনের মায়া আগে করতে হবে। পড়াশোনার ক্ষতি ভবিষ্যতে পুষিয়ে নেওয়া যাবে। তাই যখন একটি করোনা রোগীও থাকবে না, বাতাসে করোনার জীবাণু থাকবে না, ঠিক তখন যেন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়া হয়। এর আগে নয়। হামিদা আলী বলেন, সব শিক্ষার্থী আমাদের সন্তান, এটি আমাদের আগে বিবেচনা করতে হবে। তাই কারও জীবন সংকটে ফেলে শিক্ষা নয়। শহরের শিক্ষার্থীরা বর্তমান পরিস্থিতিতে অনলাইন ক্লাসে অভ্যস্ত হয়ে উঠছে

কিন্তু গ্রামে এখনো অনলাইন ক্লাস সেভাবে নিশ্চিত করা পুরোপুরি সম্ভব হচ্ছে না। তাই করোনা পরিস্থিতি সম্পূর্ণরূপে সংক্রমণ বন্ধ হওয়ার পর শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে শিক্ষার্থীদের জন্য এক্সট্রা কেয়ার ক্লাসের ব্যবস্থা করা যেতে পারে। এছাড়াও প্রয়োজনীয় নানা পদক্ষেপ নেওয়া যেতে পারে।

প্রতিদিনবিডি২৪/সাইকা

ভালো লাগলে এই পোস্টটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই কেটাগরির আরো খবর

Categories

© All rights reserved 2020 protidinbd24

কারিগরি সহায়তা WhatHappen