1. admin@protidinbd24.com : admin :
সোমবার, ০৪ জুলাই ২০২২, ১২:৩৩ অপরাহ্ন
আমাদের ভিষন;
*সত্য প্রকাশে আমরা দূর্বার*
প্রধান খবর
শিক্ষকরা নিজ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের কোচিং বা প্রাইভেট পড়াতে পারবেন না; যেসব রুট ধরে পদ্মা সেতু হয়ে ইউরোপে যাবে ট্রেন পদ্মা সেতু: ৩৫ বছরে সরকারের দেওয়া অর্থ পরিশোধ করবে সেতু কর্তৃপক্ষ; পদ্মা সেতুর রেলিংয়ের নাট-বল্টু খুলে টিকটক ভিডিও তৈরি করা যুবক আটক সর্বনিম্ম ২ ঘন্টা থেকে ২০ ঘণ্টার দুর্ভোগ ৬ মিনিটে শেষ পদ্মা সেতুতে কোনো যানবহন দাড় করিয়ে ছবি তোলা যাবেনা; কুমিল্লা সিটি মেয়র নির্বাচনে হার-জিতের ইতিবৃত্ত; স্বপ্নের পদ্মা সেতু: সূচনা থেকে সর্বশেষ ইতিবৃত্ত তিনিই কি দূর্নীতির বরপুত্র? নাকি হাতির দন্ত! পদ্মা সেতুর টোল সংযোজন করে ভাড়া বাড়লো ১০টাকা; দক্ষিণ বঙ্গের ১৩টি রুটের বাসভাড়া নির্ধারণ; রাসুল (সঃ) কে নিয়ে কটূক্তি করায় বিজেপি নেতা গ্রেপ্তার ২৫তারিখেই উদ্বোধন হবে স্বপ্নের পদ্মা সেতু; পদ্মা সেতু নির্মাণ ব্যয় নিয়ে স্বার্থান্বেষী গোষ্ঠীর মিথ্যা প্রচারণাগুলোকে নিন্দা জানাই॥ Abc চট্টগ্রাম হাটহাজরীতে সাতবাচ্চার জম্ম দিয়েছেন এক মা; বার কাউন্সিল নির্বাচন: আ.লীগের সাদা প্যানেল ১০ ও বিএনপির নীল প্যানেল ৪ পদে জয়; দূর্নীতি মামলায় নর্থ সাউথের ৪ ট্রাস্টি সদস্য কারগারে; ভূমি সংস্কারে নতুন আইন, ব্যক্তি পর্যায়ে ৬০ বিঘা মালিকানার সুযোগ, বেশী হলে বাজেয়াপ্ত। পিকে (প্রশান্ত কুমার) হালদার ইস্যুতে চার সংস্থায় তথ্য চেয়ে চিঠি দিয়েছে দুদক। পদ্মা সেতুর উদ্বোধনে চলছে বিশেষ প্রস্তুতি;

হেফাজতে সামিল হচ্ছে জামাত চক্র নেতাকর্মীরা ;

  • শুক্রবার, ১৩ নভেম্বর, ২০২০
  • ২৯৭ বার পড়া হয়েছে

 

অনলাইন ডেস্ক ;

২০১৩ সালের ৫ই মে। হেফজতের পূর্ব নির্ধারিত সমাবেশ ঘিরে দিনভর আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সঙ্গে দফায় দফায় সংঘর্ষ। সরকারি-বেসরকারি সম্পদ ভাঙচূর ও বিভিন্ন স্থাপনায় আগুনও ধরিয়ে দেয় হেফাজত কর্মীরা। পরে অভিযানের মধ্যদিয়ে দমন হয় নাশকতা। পরবর্তীকালে তদন্তে বেরিয়ে আসে নাশকতার পেছেনে-হাত ছিল জামাত-শিবিরের।

আবারও হেফাজতে সামিল হচ্ছে জামাতের নেতাকর্মীরা। সম্প্রতি রাজধানীতে হেফাজতের ফ্রান্সবিরোধী বিক্ষোভ মিছিল ঘিরে ছিল জামাতকর্মীদের সরব উপস্থিতি।

খোঁজ নিয়ে দেখাযায়, সম্প্রতি রাজধানীতে ফ্রান্স দূতাবাস ঘেরাও কর্মসূচিতে বহু মানুষ জড়ো হয়। মূলত হেফাজতের মিছিলে এসে মেলে জামাতকর্মীরা। কর্মসূচিতে জামাতের অর্থায়নও ছিল। নেতৃত্বে ছিলেন দেলোয়ার হোসেন সাইদীর পুত্র শামীম সাইদী।

এই বিষয়ে জানতে চাইলে শামীম সাইদী বলেন, ‘আমরা তো মুসলমান হিসিবেই অংশগ্রহণ করেছি। সেখানে আমরা যারা ছিলাম, সেখানে হেফাজতের কোন নেতাকর্মী ছিলেন না, বিশেষ করে আমি যে ব্যানারে ছিলাম। কাজেই হেফাজতের সঙ্গে আমাদের কোন দূরত্ব নেই।’

তবে আলেমরা মনে করেন সমাবেশের গায়ে কালিমা দিতেই সেদিন জামাত এসে মিশে ছিল। এ ব্যাপারে রাজধানীর আম্বর শাহ জামে মসজিদের খতিব মাওলানা মাজহারুল ইসলাম বলেন, ‘আমরা লক্ষ্য করেছি যে, আমাদের রাসূল (সা.) নিয়ে করা আন্দোলনে অনেকে রাজনৈতিক দাবিও ঢুকিয়েছেন। হেফাজতের অনেকে রয়েছে, যারা জামায়াতের সাথে লেয়াজু কমিটেত তথা ২০ দলীয় জোটে রয়েছে। অনেক সময় তারাও একমত হয়ে দেখা যায় এ আন্দোলনগুলো করেন।’

জামাতের এই সুক্ষ কৌশল থেকে বাচতে হেফাজতের নীতিনির্ধারকদের সতর্ক হওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন ইসলামিক ফাউন্ডেশনের পরিচালক মাওলানা আনিসুজ্জামান শিকদার।

তিনি বলেন, ‘শুধু জামায়াতে ইসলাম নয়, যেকোন উগ্র দলই আমাদের জন্য ক্ষতিকর। হেফাজতের ইসলাম যারা করেন, তাদেরও মৌলিক কথা শান্তি। তারপরও তাদের সাবধান থাকা দরকার যে, এখানে এমন কোন লোক অনুপ্রবেশ না করে যাতে তাদের ভালও কিছুও খারাপে পরিণত হয়।’

নিরাপত্তা বিশ্লেষকরা মেজর জেনারেল (অব.) আবদুর রশীদ বলছেন, ‘যুদ্ধাপরাধের দায়ে অভিযুক্ত সংগঠনটি এখনো বিদেশী শক্তির মদদ পাচ্ছে।’

তিনি বলেন, ‘হেফাজত যেটি ডাক দিয়েছে, সেটিতে জামায়াতের অংশগ্রহণ আজকের না। এরকম রাজনৈতিক সমাবেশ করে যদি কোন অঘটন ঘটে যায়, সেটি বাংলাদেশের যে ভাবমূর্তি আছে সেটি মারাত্মকভাবে ব্যহত হবে।’

৫ মের ঘটনা থেকে হেফাজতের শিক্ষা উচিত মন্তব্য করে আবদুর রশীদ বলেন, ‘এখানে যে হুমকি-ধামকি দেয়া হচ্ছে, তা
মূলত একধরনের পেশার তৈরি জন্য।’

প্রতিদিনবিডি২৪/সাইকা;

ভালো লাগলে এই পোস্টটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই কেটাগরির আরো খবর

Categories

© All rights reserved 2020 protidinbd24

কারিগরি সহায়তা WhatHappen