1. admin@protidinbd24.com : admin :
সোমবার, ০৪ জুলাই ২০২২, ০৫:৩০ পূর্বাহ্ন
আমাদের ভিষন;
*সত্য প্রকাশে আমরা দূর্বার*
প্রধান খবর
শিক্ষকরা নিজ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের কোচিং বা প্রাইভেট পড়াতে পারবেন না; যেসব রুট ধরে পদ্মা সেতু হয়ে ইউরোপে যাবে ট্রেন পদ্মা সেতু: ৩৫ বছরে সরকারের দেওয়া অর্থ পরিশোধ করবে সেতু কর্তৃপক্ষ; পদ্মা সেতুর রেলিংয়ের নাট-বল্টু খুলে টিকটক ভিডিও তৈরি করা যুবক আটক সর্বনিম্ম ২ ঘন্টা থেকে ২০ ঘণ্টার দুর্ভোগ ৬ মিনিটে শেষ পদ্মা সেতুতে কোনো যানবহন দাড় করিয়ে ছবি তোলা যাবেনা; কুমিল্লা সিটি মেয়র নির্বাচনে হার-জিতের ইতিবৃত্ত; স্বপ্নের পদ্মা সেতু: সূচনা থেকে সর্বশেষ ইতিবৃত্ত তিনিই কি দূর্নীতির বরপুত্র? নাকি হাতির দন্ত! পদ্মা সেতুর টোল সংযোজন করে ভাড়া বাড়লো ১০টাকা; দক্ষিণ বঙ্গের ১৩টি রুটের বাসভাড়া নির্ধারণ; রাসুল (সঃ) কে নিয়ে কটূক্তি করায় বিজেপি নেতা গ্রেপ্তার ২৫তারিখেই উদ্বোধন হবে স্বপ্নের পদ্মা সেতু; পদ্মা সেতু নির্মাণ ব্যয় নিয়ে স্বার্থান্বেষী গোষ্ঠীর মিথ্যা প্রচারণাগুলোকে নিন্দা জানাই॥ Abc চট্টগ্রাম হাটহাজরীতে সাতবাচ্চার জম্ম দিয়েছেন এক মা; বার কাউন্সিল নির্বাচন: আ.লীগের সাদা প্যানেল ১০ ও বিএনপির নীল প্যানেল ৪ পদে জয়; দূর্নীতি মামলায় নর্থ সাউথের ৪ ট্রাস্টি সদস্য কারগারে; ভূমি সংস্কারে নতুন আইন, ব্যক্তি পর্যায়ে ৬০ বিঘা মালিকানার সুযোগ, বেশী হলে বাজেয়াপ্ত। পিকে (প্রশান্ত কুমার) হালদার ইস্যুতে চার সংস্থায় তথ্য চেয়ে চিঠি দিয়েছে দুদক। পদ্মা সেতুর উদ্বোধনে চলছে বিশেষ প্রস্তুতি;

ফরহাদ হোসেনের অধ্যক্ষ পদ অবৈধ,নতুন অধ্যক্ষ নিয়োগের সুপারিশ মাউশির ;

  • শনিবার, ২৩ জানুয়ারী, ২০২১
  • ২২৯৬ বার পড়া হয়েছে

 

অনলাইন ডেস্ক ;

শিক্ষা নিতি গেজেট ১১(৬)ধারা নিয়ম অনুযায়ী বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রধানের বয়স ৬০বছর পূর্ণ হওয়ার পর তাকে কোনো অবস্থাতেই ওই পদে পুনঃনিয়োগের সুযোগ নেই। যদিও রাজধানীর মনিপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের অধ্যক্ষ ফরহাদ হোসেনের চাকরির বয়সসীমা পূর্ণ হওয়ার পরও বিধি বহির্ভূতভাবে তাকে অধ্যক্ষ পদে পুনরায় নিয়োগ দেয়া হয়েছে। এছাড়া প্রধান শিক্ষক পদে থাকাকালীনও অবৈধভাবে বছরের পর বছর অধ্যক্ষ হিসেবে সিল ব্যবহার করতেন তিনি।

মোঃ ফরহাদ হোসেনের অনিয়ম তদন্তে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর (মাউশি) গঠিত কমিটির প্রতিবেদনে এসব তথ্য উঠে এসেছে। সরেজমিন পরিদর্শন ও সংশ্লিষ্টদের সাক্ষাতকার গ্রহণ করে সম্প্রতি প্রতিবেদনটি জমা দিয়েছে তদন্ত কমিটি। তদন্ত কমিটিতে থাকা কর্মকর্তাদের মধ্যে রয়েছেন মাউশির উপপরিচালক (শারীরিক শিক্ষা) মোঃ আক্তারুজ্জামান ভূঞা, সহকারী পরিচালক (অর্থ ও ক্রয়) মোঃ তানভীর মোশারফ খান, সহকারী পরিচালক (বিশেষ) মোঃ খালেদ সাইফুল্লাহ ও সহকারী পরিচালক (মাধ্যমিক) কাউছার আহমেদ।

ফরহাদ হোসেনের অধ্যক্ষ পদে পুনরায় নিয়োগ বিষয়ে প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের (স্কুল ও কলেজ) জনবল কাঠামো ও এমপিও নীতিমালা-২০১৮ অনুযায়ী, ৬০বছর পূর্ণ হওয়ার পর কোনো প্রতিষ্ঠানে প্রধান, সহকারী প্রধান কিংবা শিক্ষক-কর্মচারীকে কোনো অবস্থাতেই পুনরায় নিয়োগ কিংবা চুক্তিভিত্তিক নিয়োগ দেয়া যাবে না। ফরহাদ হোসেনের জন্মতারিখ ১৯৬০ সালের ৩ জুলাই। সে হিসেবে ২০২০সালে ২জুলাই ৬০পূর্তিতে তিনি অবসরে যান। যদিও গত বছরের ২০মে ২০২৩ সাল পর্যন্ত তিন বছরের জন্য তার নিয়োগের মেয়াদ বাড়ায় গভর্নিং বডি, যা বিধিসম্মত হয়নি।

এ প্রসঙ্গে তদন্ত কমিটির একজন সদস্য নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, তদন্ত কার্যক্রমের অংশ হিসেবে আমরা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটি সরেজমিন পরিদর্শনে যাই। সেখানে প্রতিষ্ঠানের অধ্যক্ষ, সহকারী প্রধান শিক্ষক ও অন্যান্য শিক্ষক-কর্মচারীর লিখিত ও মৌখিত বক্তব্য গ্রহণ করি। সবার বক্তব্য ও তথ্য-প্রমাণাদি বিশ্লেষণ করে একটি প্রতিবেদন তৈরি করা হয়েছে। সম্প্রতি প্রতিবেদনটি সংশ্লিষ্ট দপ্তরে জমা দেয়া হয়েছে। পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণের বিষয়ে উচ্চ পর্যায়ের কর্মকর্তারা ভালো বলতে পারবেন।

এছাড়া প্রধান শিক্ষক পদে থাকাকালীন বছরের পর বছর নিজেকে অধ্যক্ষ দাবি করে ওই পদের সিল ব্যবহার করতেন ফরহাদ হোসেন। এ বিষয়ে প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ২০১০সালে প্রধান শিক্ষক হিসেবে নিয়োগপ্রাপ্ত হলেও ফরহাদ হোসেন বিধিমোতাবেক অধ্যক্ষ পদটি ব্যবহার করতে পারেন না। যদিও ২০১০সাল থেকেই তিনি অধ্যক্ষ সিল ব্যবহার করে আসছেন, যা গুরুতর অনিয়ম বলেই মনে হয়েছে। কেননা বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের জনবল কাঠামো অনুযায়ী স্ববেতনে প্রধান শিক্ষক হিসেবেই নিয়োজিত থাকার কথা। এক্ষেত্রেও নিয়মের ব্যত্যয় ঘটেছে বলে তদন্ত কর্মকর্তাদের কাছে প্রতীয়মান হয়।

এদিকে প্রতিষ্ঠানের তহবিল থেকে অবৈধভাবে অর্থ উত্তোলনের অভিযোগও রয়েছে ফরহাদ হোসেনের বিরুদ্ধে। এ বিষয়ে তদন্ত প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, এমপিও শিটে যথাযথ নিয়ম অনুসরণ না করে ফরহাদ হোসেনের নাম অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে, যা বিধিসম্মত নয়। তিনি প্রধান শিক্ষক হিসেবে নিয়োগপ্রাপ্তি পর্যন্ত ২০লাখ টাকার বেশি অর্থ উত্তোলন করেছেন। এ বিষয়টি পরিদর্শন ও নিরীক্ষা অধিদপ্তরের মাধ্যমে যাচাই করা যেতে পারে।

ফরহাদ হোসেনকে বাদ দিয়ে নতুন অধ্যক্ষ নিয়োগের সুপারিশও করা হয়েছে মাউশির তদন্ত প্রতিবেদনে। এ বিষয়ে বলা হয়েছে, প্রতিষ্ঠানটি সুষ্ঠুভাবে পরিচালনার স্বার্থে সরকারি নীতিমালা মেনে একজন নতুন অধ্যক্ষ নিয়োগ দেয়া প্রয়োজন।

সার্বিক বিষয়ে মাউশির উপপরিচালক (শারীরিক শিক্ষা) মোঃ আক্তারুজ্জামান ভূঞা বলেন, কিছু সুনির্দিষ্ট বিষয়ে আসা অভিযোগ তদন্তে আমাদের কমিটি করা হয়েছিল। কমিটির পক্ষ থেকে কাজ করতে গিয়ে আমরা বেশকিছু অনিয়ম খুঁজে পেয়েছি। মন্ত্রণালয়ের পরিপত্র ও বিবিবিধানের সঙ্গে অসংগতিপূর্ণ বিষয়গুলো উদ্ধৃত করে প্রতিবেদনটি তৈরি করা হয়েছে। মূলত যে বিষয়টি উঠে এসেছে সেটি হচ্ছে, ফরহাদ হোসেনের অধ্যক্ষ হিসেবে দেয়া নিয়োগটি বিধি অনুসরণ করে হয়নি।এজন্য আমরা নতুন অধ্যক্ষ নিয়োগের প্রয়োজনীয়তার কথা প্রতিবেদনে উল্লেখ করেছি।

মনিপুর স্কুলের অনিয়ম ও আর্থিক স্বেচ্ছাচারিতার বিষয়ে অভিভাবকদের অনেক অভিযোগ রয়েছে। অনিয়ম স্বেচ্ছাচারিতার প্রতিবাদে অভিভাবক ফোরাম নামে অভিভাবক প্রতিনিধি দলের ১২হাজার সদস্যের একটি ফেসবুক গ্রুপ রয়েছে।সেখানে প্রতিনিয়ত অভিভাবকরা তাদের সমস্যা তুলে ধরেন। দেখা যায় অভিভাবক প্রতিনিধিরা প্রতিনিয়ত তাদের সমস্যা ও অভিযোগ লিখিত ভাবে মাউশিকে অবহিত করছেন।
এক অভিভাবক গ্রুপে লিখেছেন আমি ছাড়পত্র চেয়েছি আমাকে সম্পুর্ন বেতন পরিশোধ করতে বলা হলো।১২,১৫০টাকা বেতন পরিশোধ করার পরে আবার ৫,২০০টাকা পরিশোধ করে ভর্তি হতে বলা হলো, তার পরে আবার ১৫০০টাকা ছাড়পত্র ফি দিয়ে ছাড়পত্র নিতে হলো। এই হলো নির্যাতন অনিয়মের নমুনা।তাছাড়া অভিযোগের পাহাড় রয়েছে ৪০হাজার অভিভাবকের।এ বছর অনেক অভিভাবক তাদের সন্তান অন্যত্র নিয়ে নিয়েছেন।

অনেক অভিভাবক অভিযোগ করেছেন যত অনিয়মের হোতা ফরহাদ হোসেন।তাই কামাল মজুমদার তাকে যোগ্যতা না থাকা সত্বেও অধ্যক্ষ হিসাবে রেখেছেন। ফরহাদ হোসেন বলেছেন আমার ব্যাক্তিগত কোনো সিদ্ধান্ত নেই, গভর্নিং বডির সিদ্ধান্ত মোতাবেক আমি দায়িত্ব পালন করি মাত্র।

প্রতিদিনবিডি২৪/একে আজাদ;

ভালো লাগলে এই পোস্টটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই কেটাগরির আরো খবর

Categories

© All rights reserved 2020 protidinbd24

কারিগরি সহায়তা WhatHappen