1. admin@protidinbd24.com : admin :
সোমবার, ০৪ জুলাই ২০২২, ০৬:২৮ পূর্বাহ্ন
আমাদের ভিষন;
*সত্য প্রকাশে আমরা দূর্বার*
প্রধান খবর
শিক্ষকরা নিজ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের কোচিং বা প্রাইভেট পড়াতে পারবেন না; যেসব রুট ধরে পদ্মা সেতু হয়ে ইউরোপে যাবে ট্রেন পদ্মা সেতু: ৩৫ বছরে সরকারের দেওয়া অর্থ পরিশোধ করবে সেতু কর্তৃপক্ষ; পদ্মা সেতুর রেলিংয়ের নাট-বল্টু খুলে টিকটক ভিডিও তৈরি করা যুবক আটক সর্বনিম্ম ২ ঘন্টা থেকে ২০ ঘণ্টার দুর্ভোগ ৬ মিনিটে শেষ পদ্মা সেতুতে কোনো যানবহন দাড় করিয়ে ছবি তোলা যাবেনা; কুমিল্লা সিটি মেয়র নির্বাচনে হার-জিতের ইতিবৃত্ত; স্বপ্নের পদ্মা সেতু: সূচনা থেকে সর্বশেষ ইতিবৃত্ত তিনিই কি দূর্নীতির বরপুত্র? নাকি হাতির দন্ত! পদ্মা সেতুর টোল সংযোজন করে ভাড়া বাড়লো ১০টাকা; দক্ষিণ বঙ্গের ১৩টি রুটের বাসভাড়া নির্ধারণ; রাসুল (সঃ) কে নিয়ে কটূক্তি করায় বিজেপি নেতা গ্রেপ্তার ২৫তারিখেই উদ্বোধন হবে স্বপ্নের পদ্মা সেতু; পদ্মা সেতু নির্মাণ ব্যয় নিয়ে স্বার্থান্বেষী গোষ্ঠীর মিথ্যা প্রচারণাগুলোকে নিন্দা জানাই॥ Abc চট্টগ্রাম হাটহাজরীতে সাতবাচ্চার জম্ম দিয়েছেন এক মা; বার কাউন্সিল নির্বাচন: আ.লীগের সাদা প্যানেল ১০ ও বিএনপির নীল প্যানেল ৪ পদে জয়; দূর্নীতি মামলায় নর্থ সাউথের ৪ ট্রাস্টি সদস্য কারগারে; ভূমি সংস্কারে নতুন আইন, ব্যক্তি পর্যায়ে ৬০ বিঘা মালিকানার সুযোগ, বেশী হলে বাজেয়াপ্ত। পিকে (প্রশান্ত কুমার) হালদার ইস্যুতে চার সংস্থায় তথ্য চেয়ে চিঠি দিয়েছে দুদক। পদ্মা সেতুর উদ্বোধনে চলছে বিশেষ প্রস্তুতি;

দূর্নীতির কারনে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান পরিচালনা কমিটির ক্ষমতা কমাচ্ছে সরকার!!

  • রবিবার, ২১ ফেব্রুয়ারী, ২০২১
  • ৩৫৪ বার পড়া হয়েছে

দূর্নীতির কারনে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান পরিচালনা কমিটির ক্ষমতা কমাচ্ছে সরকার!!

অনলাইন ডেস্ক ;

গত মঙ্গলবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) শিক্ষা আইন-২০২১ এর চূড়ান্ত খসড়া বিধান যুক্ত করা হয়েছে।

বেসরকারি শিক্ষকদের হয়রানি বন্ধ ও প্রতিষ্ঠানের আর্থিক দুর্নীতিসহ বিভিন্ন অনিয়ম প্রতিরোধে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান পরিচালনা কমিটির ক্ষমতা কমাচ্ছে সরকার। কর্ম পরিধির বাইরে চেয়ারম্যান বা কমিটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের দৈনন্দিন প্রশাসনে হস্তক্ষেপ বা পাঠদানে এখতিয়ার প্রয়োগ করতে পারবে না। শিক্ষা আইন প্রণয়নের পর গেজেট আকারে প্রকাশ হলে আইনের আওতায় নির্দিষ্ট বিধির মাধ্যমে কমিটির এখতিয়ার নির্ধারণ করা হবে।

এর আগে কমিটি নিয়ন্ত্রণ করতো শিক্ষাবোর্ড। শিক্ষা বোর্ডের আইনে বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের পরিচালনা কমিটি ভেঙে দেওয়ার এখতিয়ার ছিল। প্রতিষ্ঠান প্রধানসহ কোনও শিক্ষকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে পরিচালনা কমিটিকে নির্দেশনা দেওয়ার ক্ষমতা ছিল শিক্ষা বোর্ডের। কোনও শিক্ষকের চাকরিচ্যুতির পূর্ণাঙ্গ ক্ষমতা ছিল কমিটির হাতে। বিধি অনুযায়ী কমিটি এখতিয়ার বহির্ভূত কাজে বা প্রতিষ্ঠানের প্রশাসনিক কাজে হস্তক্ষেপ করতো।

এসব পরিস্থিতিতে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের কমিটি গঠন, কমিটির কর্মপরিধি বা এখতিয়ার নিশ্চিত করার বিধান শিক্ষা আইনের চূড়ান্ত খসড়ায় যুক্ত করা হয়।

শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেন, ‘আইনে সবকিছু তো থাকবে না, বিধিমালা নীতিমালা করে আইন বাস্তবায়ন করা হবে। আইন অনুযায়ী বিধিমালা নীতিমালা প্রণয়ন করা হবে। শিক্ষা বোর্ডের আইন সংশোধন করা হবে।’

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সচিব মো. মাহবুব হোসেন বলেন, আমরা অব্যবস্থাপনা দূর করে ডিসিপ্লিন আনার চেষ্টা করছি। বিভিন্ন ক্ষেত্রে রুলস অ্যান্ড রেগুলেশনে কিছু বিষয় সুনির্দিষ্ট করা নেই। সেই বিষয়গুলোকে সুনির্দিষ্ট করা হয়েছে আইনের খসড়ায়। সুনির্দিষ্ট কাঠামো ছাড়া কিছু কাজ করছি। পরে আদালতে গিয়ে চ্যালেঞ্জ করা হয়। সে কারণে আমরা সমস্যায় পড়ি। সেই জন্যই কাঠামো দরকার। এরকম অনেক বিষয় শিক্ষা আইনের খসড়ায় বিষয় সুনির্দিষ্ট করা হয়েছে। যাতে রেগুলেটরি বডিগুলো সুনির্দিষ্টভাবে কাজ করতে পারবে। এতে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহ নিশ্চিত হবে। ’

ব্যবস্থাপনা বা পরিচালনা কমিটি গঠন নিয়ে আইনের চূড়ান্ত খসড়ায় বলা হয়, সকল ধারার বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে স্তর অনুযায়ী বাধ্যতামূলক ভাবে ব্যবস্থাপনা কমিটি, পরিচালনা কমিটি গঠন করতে হবে। ব্যবস্থাপনা কমিটি, পরিচালনা কমিটি শিক্ষক-অভিভাবক পরিষদের গঠন, মেয়াদ কার্যপরিধি ও অন্যান্য শর্ত বিধি দ্বারা নিয়ন্ত্রিত হবে।

কমিটির এখতিয়ারের সীমাবদ্ধতার বিষয়ে আইনের খসড়ায় বলা হয়, বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের জন্য গঠিত ব্যবস্থাপনা, পরিচালনা কমিটি বা কমিটির চেয়ারম্যান বা সভাপতি নির্ধারিত এখতিয়ার বা কর্মপরিধির বাইরে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের দৈনন্দিন প্রশাসনে বা পাঠদানে হস্তক্ষেপ বা এখতিয়ার প্রয়োগ করতে পারবে না।

ব্যবস্থাপনা কমিটি বা পরিচালনা কমিটি বা কমিটির চেয়ারম্যান বা সভাপতি নির্ধারিত এখতিয়ার বা কর্মপরিধির বাইরে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের দৈনন্দিন প্রশাসনে বা পাঠদানে হস্তক্ষেপ বা এখতিয়ার প্রয়োগ করার ফলে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের প্রশাসনে কোনও অনিয়ম বা পাঠদানে বাধাগ্রস্ত হলে কমিটি সার্বিকভাবে বা কমিটির চেয়ারম্যান বা সভাপতি দায়ী থাকবেন এবং নির্ধারিত কর্তৃপক্ষ ওই কমিটি বাতিল করতে বা কমিটির চেয়ারম্যান বা সভাপতিকে অপসারণ করতে পারবে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, বিদ্যমান শিক্ষা বোর্ডের আইনে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ব্যবস্থাপনা, পরিচালনা কমিটির যথাযথ সংশ্লিষ্ট শিক্ষা বোর্ড। তবে শিক্ষা বোর্ডের আইনের সীমাবদ্ধতা থাকায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ব্যবস্থাপনা, পরিচালনা কমিটির ভেঙে দেওয়া ছাড়া তেমন কোনও ব্যবস্থা নিতে পারে না। তাছাড়া নিয়ন্ত্রণকারী কর্তৃপক্ষ হিসেবে শিক্ষা বোর্ডের আইনে সীমাবদ্ধতা থাকায় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোর কমিটি থেকে মামলা করতো বেশিরভাগ ক্ষেত্রে। এসব কারণে শিক্ষা বোর্ডের আইন সংশোধনেরও উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। শিক্ষা আইনের গেজেট প্রকাশের পর শিক্ষা বোর্ডের আইন সংশোধন করা হবে। শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ব্যবস্থাপনা ও পরিচালনায় কমিটির এখতিয়ার সুনির্দিষ্ট করা হবে। অনিয়ম হলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার ক্ষেত্রে কোনও প্রতিবন্ধকতা থাকবে না।

প্রতিদিনবিডি২৪/সাইকা;

ভালো লাগলে এই পোস্টটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই কেটাগরির আরো খবর

Categories

© All rights reserved 2020 protidinbd24

কারিগরি সহায়তা WhatHappen